fbpx

What Picture of African Polygamous Society Do You Find in The Lion and the Jewel? (বাংলায়)

Question: What picture of African polygamous society do you find in The Lion and the Jewel?

Wole Soyinka-এর (1934-বর্তমানে) “দ্যা লায়ন অ্যান্ড দ্যা জুয়েল” (1962), একটি আফ্রিকান বহুবিবাহ সমাজের চিত্র উপস্থাপন করা হয়েছে। নাটকটি সামাজিক রীতিনীতি, লিঙ্গ গতিশীলতা এবং ঐতিহ্য ও আধুনিকতার মধ্যে দ্বন্দ্ব প্রকাশ করে। এখানে কিছু মূল পয়েন্ট, যা এই চিত্রটিকে হাইলাইট করে:

ঐতিহ্য হিসাবে বহুবিবাহ: নাটকটি ইওরুবা সমাজের মধ্যে বহুবিবাহের ঐতিহ্যগত প্রথাকে তুলে ধরে। গ্রামের প্রধান ব্যারোকা ইতিমধ্যে বেশ কয়েকটি স্ত্রীকে বিয়ে করেছে। সে সুন্দরী তরুণী সিডিকে বিয়ে করতে চায়। এটি বহুবিবাহের সামাজিক স্বীকৃতি এবং আদর্শকে প্রতিফলিত করে:

আরো পড়ুনঃ What is Raina’s View on Killing the Fugitives? (বাংলায়)

“গত পাঁচ মাস হয়ে গেছে

আমি বউ নিয়েছি”(সর্বশেষ বিয়ে করেছে ৫ মাস আগে)

জেন্ডার ডাইনামিকস এবং পিতৃতন্ত্র: নাটকটি বহুবিবাহ সমাজের মধ্যে পিতৃতান্ত্রিক কাঠামোকে তুলে ধরে। ব্যারোকা সিডিকে পেতে চায়। সিডি একজন তরুণী। অনেকে স্ত্রী থাকার পরেও ব্যারোকা যে তাকে পেতে চায়, এটি আধিপত্য এবং নিয়ন্ত্রণের জন্য ঐতিহ্যগত পুরুষ আকাঙ্ক্ষাকে প্রতিফলিত করে। ব্যারোকার মন্তব্য,

“তাকে দেখতে পাওয়া যাবে… অন্ধকার কোণে

তেলাপোকার মতো”

ব্যারোকা তার “প্রিয়” স্ত্রীকে একটি তেলাপোকার সাথে তুলনা করে, যখন তার স্ত্রী ঘটনাক্রমে তার বগলে আঘাত করে। এই বিবৃতিটি তুলে ধরে যে, পুরুষরা নারীদের, এমনকি তাদের স্ত্রীদেরও কতটা কম মূল্য দেয়।

আরো পড়ুনঃ How Does Baroka Seduce Sidi in “The Lion and the Jewel”? (বাংলায়)

মহিলা সংস্থা এবং প্রতিরোধ: সিডি, গ্রামের সুন্দরী বালিকা, বহুবিবাহ সম্পর্কে ট্রেডিশনাল মতামতকে চ্যালেঞ্জ করে। সামাজিক চাপ সত্ত্বেও, সে প্রথমে ব্যারোকার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করে। সে তার আকাঙ্ক্ষা এবং স্বাধীনতা প্রতি গুরুত্বারোপ করে বলে:

“আমি মানুষের মধ্যে জীবন্ত দেবতার চেয়েও বড়।” (ম্যাগাজিনে সে নিজের ছবি দেখে নিজের সৌন্দর্যের প্রতি গর্ব করে এই কথা বলে)

তার বিরোধিতা বহুবিবাহের ক্ষেত্রে তার ভূমিকা সম্পর্কে মহিলাদের মধ্যে একটি পরিবর্তনশীল দৃষ্টিভঙ্গির ইঙ্গিত দেয়।

আধুনিকতা এবং ঐতিহ্যের সংঘর্ষ: নাটকটি বহুবিবাহ সম্পর্কিত আধুনিকতা এবং ঐতিহ্যগত মূল্যবোধের মধ্যে সংঘর্ষকে প্রকাশ করে। ল্যাকুনলে একজন স্কুলশিক্ষক এবং সে পশ্চিমা মূল্যবোধের সমর্থক। সে বহুবিবাহের বিরোধিতা করেন এবং গ্রামকে আধুনিক করতে চায়। সে ঐতিহ্যগত বজায় রাখা এবং আধুনিক মতাদর্শের মধ্যে সংঘর্ষের প্রতিনিধিত্ব করে।

আরো পড়ুনঃ Why Does Bluntschli Compare Sergius to Don Quixote? (বাংলায়)

সিডির কাছে ব্যারোকার বিয়ের প্রস্তাবে লাকুনলের রাগ নাইজেরিয়ার ঐতিহ্যবাহী বিবাহ সংস্কৃতির প্রতি তার বিতৃষ্ণাকে তুলে ধরে। সে বহুবিবাহকে অস্বস্তিকর এবং “বর্বর” মনে করে। বহুবিবাহ তার আদর্শিক একবিবাহের বিপরীতে। সে ব্যারোকাকে অপমান করে বলে,

“লোভী কুকুর! উন্মাদ মূর্খ উট, ঘৃণ্য জাতি।”

“দ্যা লায়ন অ্যান্ড দ্যা জুয়েল”-এ আফ্রিকান বহুগামী সমাজের বর্বর চিত্র ফুটে উঠেছে। ট্রেডিশনাল ও আধুনিকতার মধ্যকার সংঘর্ষকে উপস্থাপন করতে বহুবিবাহকে এই আইকনিক নাটকে উপস্থাপন করা হয়েছে।

Shihabur Rahman
Shihabur Rahman
Hey, This is Shihabur Rahaman, B.A (Hons) & M.A in English from National University.

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

ফেসবুক পেইজ

কোর্স টপিক